Breaking News

দ্বিতীয় ময়`নাতদ`ন্তে রায়হা`নের দেহে মি`লল ১১১ টি আ`ঘাতে`র চিহ্ন

সিলেটের বন্দরবাজার পুলি`শ ফাঁড়িতে নি`র্যাত`নে মা`রা যাওয়া রায়`হানের শরীরে ১১১টি আঘা`তের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এসব আ`ঘাতে`র মধ্যে ৯৭টি নীলা ফো`লা আ`ঘাত ও ১৪টি জখ`মের চিহ্ন ছিলো। ফরে`নসিক রি`পোর্টে এসব আঘা`তের চিহ্ন উঠে এসে`ছে।শনিবার (১৭ অক্টো`বর) স`ন্ধ্যায় সিলে`ট এমএজি ওসমা`নী

মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেন`সিক বি`ভাগের প্র`ধান ডা. শামসুল ইস`লাম এ তথ্য নিশ্চিত ক`রেছেন।ডা. শামসুল ইসলাম জানান, আঘা`তগু`লো লাঠি দি`য়েই করা হয়েছে। আর অতি`রিক্ত আঘা`তের কার`ণে শরী`রের ভে`তর রগ ফেটে গিয়ে অতি`রিক্ত রক্তক্ষ`রণে মারা যান রা`য়হান।

আ`ঘাতে শরী`রের মাংস থেঁ`তলে যায়। রগ ফেটে `গিয়ে আ`ন্তঃদেহে রক্ত`ক্ষরণ হয়। আর অ`তিরিক্ত আঘাতে বেহু`শ হয়ে যান রা`য়হান। আঘাত করার সময় রায়হানে`র পেট খালি ছিল। পেটে ছিল কেবল এসি`ডিটি লি`কুইড।তিনি আরও বলেন, ফরে`নসিক রিপোর্ট`টি পিবিআই’র কাছে হস্তা`ন্তর করা হয়েছে। রোববা`র (১১ অক্টোবর)

সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে রায়`হান মা`রা যান।এর আগে, বৃহস্প`তিবার (১৫ অক্টোবর) দ্বিতীয় ম`য়নাত`দন্ত শেষে ডা. শামসুল ইসলাম জানা`ন, রায়হা`নের শরীরে অসং`খ্য আ`ঘাতে`র চিহ্ন পাও`য়া গেছে। তাকে প্র`চণ্ড মা`রধর করা হয়েছে। অতি`রিক্ত আঘা`তে`র কারণেই তার মৃ`ত্যু হয়েছে।একইদিন রা`য়হানের লা`শ কবর থেকে তুলে` দ্বিতীয়বার ময়`নাতদন্ত শে`ষে বি`কেলে আখা`লিয়া নবাবী মস`জিদ সংলগ্ন কবর`স্থানে আ`বারও দা`ফন করা হয়।

গত ১১ অক্টোবর ভোরে পু`লিশ ফাঁ`ড়িতে নির্যা`তন করে ও`সমানী মেডি`কেল কলেজ হাসপা`তালে নেয়ার পর রায়হানের মৃ`ত্যু হয়। এ ঘটনায় কোতো`য়ালি থানায় হ`ত্যা মা`মলা করেন নি`হতের স্ত্রী তাহমি`না আক্তার তান্নি। এরপর বন্দ`রবা`জার পু`লিশ ফাঁ`ড়ির ইনচার্জ এস`আই আকবর হোসেন ভূঁই`য়াসহ চার পু`লিশ সদ`স্যকে সাময়ি`ক বর`খাস্ত করা হয়। একই`সঙ্গে তিন পুলি`শ সদস্য`কে প্র`ত্যা`হার করা হয়।

ঘট`নার পর রোববার থেকে আ`কবর প`লাতক রয়েছেন।মা`মলাটি পু`লিশ সদর দ`ফতরের নি`র্দেশে পিবিআ`ইতে স্থানা`ন্তর হয়। তদ`ন্তভার পাও`য়ার পর পিবিআই’র টিম ঘ`টনাস্থল বন্দ`রবাজার পুলি`শ ফাঁড়ি, নগরীর কাস্টঘর,` নিহ`তের বাড়ি পরি`দর্শন করে।

Check Also

পরনে নেই প্যান্ট, শার্টে বোতাম খুলা নিচে দেখা যাচ্ছে সাদা অন্তর্বাস

বাংলা অভিনয় জগতে বড় পর্দার সিনেমার পাশাপাশি ধারাবাহিক গুলি এই মুহূর্তে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *